Bangladesh
This article was added by the user . TheWorldNews is not responsible for the content of the platform.

বাংলাদেশ এবারের বিশ্বকাপে কেমন করবে? যা জানালেন আকাশ চোপড়া

বাংলাদেশ এবারের বিশ্বকাপে কেমন করবে? যা জানালেন আকাশ চোপড়া

বাংলাদেশ এবারের বিশ্বকাপে কেমন করবে? যা জানালেন আকাশ চোপড়া

স্পোর্টস ডেস্ক: নতুন স্বপ্ন নিয়ে বিশ্বকাপের ১৩তম আসর খেলতে গিয়েছে বাংলাদেশ। সাকিব আল হাসানদের সাম্প্রতিক পারফরম্যান্স তেমন সুখকর না হলেও শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচে দাপুটে জয় নিয়ে ভিন্ন কিছুরই ইঙ্গিত দিয়ে রেখেছে। তবুও বিশ্বকাপে টাইগারদের দৌড় বেশি দূর দেখছেন না ভারতীয় ধারাভাষ্যকার ও ক্রিকেট বিশ্লেষক আকাশ চোপড়া। তার মতে, বাংলাদেশ সেমিফাইনালে কোয়ালিফাই করতে পারবে না।

নিজের ইউটিউব চ্যানেলে দেওয়া এক ভিডিওতে তিনি এসব কথা বলেন। আকাশ চোপড়া বলেন, ‘এই দল কতদূর যাবে? আমার তো মনে হয়, এই দল শীর্ষ চারে কোয়ালিফাই করবে না। কিছু অঘটন হয়তো ঘটাতে পারে। আগেও ঘটিয়েছে। তবে এই দল যদি কোয়ালিফাই করতে পারে, মিরাকলই হবে।’

এরপর বাংলাদেশের শক্তিশালী দিকও তুলে ধরেন সাবেক এই ভারতীয় ক্রিকেটার, ‘এমনিতে ওদের ফাস্ট বোলিং ভালো, স্পিন বিভাগও। দুইজন ভালো মানের অলরাউন্ডার (মিরাজ ও সাকিব) আছে। সত্যি কথা যদি বলি, সবকিছু মিলিয়ে দল খুব বেশি ভালো নয়।’

তবে ভালো কিছু করতে চাইলে দল হিসেবে খেলার বিকল্প দেখছেন না আকাশ, ‘ব্যাটারদের জ্বলে উঠতে হবে। কেননা পাঁচ আঙুল এক না হলে হাত কখনোই মুঠোবন্দি হবে না। বাংলাদেশের ক্ষেত্রে এটা আমরা গত এশিয়া কাপেও দেখেছি। সবাই মিলে যদি পারফরম্যান্স না করতে পারে তাহলে ওরা ভালো করে না।’

দুই সিনিয়র ক্রিকেটার সাকিব আল হাসান ও তামিম ইকবালের মধ্যকার বিবাদ নিয়ে বেশ জলঘোলা পরিস্থিতি দেশের ক্রিকেট পাড়ায়। এ নিয়ে বিভক্ত ভক্তদের মাঝে বিশ্বকাপ কিছুটা আড়ালে পড়ে আছে। তবে মাঠের খেলা শুরু হলে সেই পরিস্থিতি বদলে যাবে বলে মনে করছেন ক্রিকেট সংশ্লিষ্টরা। তামিম না থাকলেও এবারের বিশ্বকাপ মিশনে টাইগার স্কোয়াডে আছেন তিন সিনিয়র ক্রিকেটার সাকিব, মুশফিকুর রহিম ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। আকাশ চোপড়ার বিশ্লেষণে এরপর এসেছে তামিম-রিয়াদদের ব্যাটিং গড় প্রসঙ্গ।

সিনিয়র ক্রিকেটারদের ওয়ানডে গড় ৪০-এর কম হওয়ায় কড়া সমালোচনা করেন এই ভারতীয়, ‘বাংলাদেশের সেরা ব্যাটার এখনও সাকিব। কেননা সে আসলেই একজন অলরাউন্ডার। তামিম ইকবাল দুইশ’র ওপর ম্যাচ খেলে আট হাজারের বেশি রান করেছে। কিন্তু তার গড় মাত্র ৩৬ (৩৬.৬)। এমন না যে কখনো ৪০ ছিল না। লিটন ৭৭ ম্যাচে গড় ৩১ (৩১.৭)। তানজিদকে নিয়ে কথা বলব না, সে এখনও বাচ্চা। সাকিবের ৩৭ (৩৭.৪)। মুশফিক ২৫৬ ম্যাচ খেলে ৩৬ (৩৬.৮) গড়। হৃদয় ভালো খেলছে, তবে তাকেও এখনও বিবেচনা করো না। নাজমুল শান্তকেও এখনও বিবেচনা করার দরকার নেই।’

তিনি আরও বলেন, ‘মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ২২১ ম্যাচ খেলার পরও গড় ৩৫ (৩৫.৩)। মিরাজ অলরাউন্ডার, ওর কথা বলা দরকার নেই। এদের কারোর গড়ই ৪০ অতিক্রম করেনি। আর এতো ম্যাচ খেলার পর যখন ৪০ অতিক্রম না করে, তাহলে বুঝতে হবে এটা ঠিক নয়। তাদের নিয়ে যেহেতু জিততে পারছে না ওরা, তাহলে অন্য কাউকে নিয়ে হয়তো জিতবে। কেননা আপনি যখন ৩১,৩২ কিংবা ৩৪ যাদের গড়, তাদের যখন আপনি বছরের পর বছর খেলিয়ে যাবেন, তখন নতুন কেউ এসে ৩০ গড়ে ব্যাট করলে সেটাকে ঠিকই মনে হবে। এভাবে পরের ক্রিকেটাররা উঠতে পারবে না।’

আগামী ২ অক্টোবর ইংল্যান্ডের বিপক্ষে দ্বিতীয় প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে সাকিবের দল। তবে সতর্কতা হিসেবে সেই ম্যাচেও খেলবেন না টাইগার অধিনায়ক। এরপর ৭ অক্টোবর শুরু হবে বাংলাদেশের বিশ্বকাপ পর্ব, প্রতিপক্ষ আফগানিস্তান। তার দুদিন আগে (৫ অক্টোবর) ইংল্যান্ড-নিউজিল্যান্ড ম্যাচ দিয়ে বিশ্বকাপের ১৩তম আসরের পর্দা উঠবে।