Bangladesh
This article was added by the user . TheWorldNews is not responsible for the content of the platform.

বিশ্বের বিখ্যাত আল-আজহার বিশ্ববিদ্যালয়ের সেরা ১০ শিক্ষার্থীর ৩ জন বাংলাদেশি!

বিশ্বের বিখ্যাত আল-আজহার বিশ্ববিদ্যালয়ের সেরা ১০ শিক্ষার্থীর ৩ জন বাংলাদেশি!

বিশ্বের বিখ্যাত আল-আজহার বিশ্ববিদ্যালয়ের সেরা ১০ শিক্ষার্থীর ৩ জন বাংলাদেশি!

এমটিনিউজ২৪ ডেস্ক : বিশ্বের বিখ্যাত আল-আজহার বিশ্ববিদ্যালয়ে এ বছর স্নাতক শেষ‌ বর্ষের পরীক্ষায় শীর্ষ ১০ এ রয়েছেন বাংলাদেশের ৩ শিক্ষার্থী। গত ২০ সেপ্টেম্বর মিশরের এ বিশ্ববিদ্যালয়ের অফিসিয়াল ফেসবুক পেইজে স্নাতক মেধা তালিকার ফলাফল প্রকাশ করে শিক্ষার্থীদের অভিনন্দন জানিয়েছে।

পেইজটির তথ্যমতে ২০২২-২০২৩ শিক্ষাবর্ষে ইসলামিক থিওলজি ফ্যাকাল্টির হাদিস ও উলূমুল হাদিস ডিপার্টমেন্টের স্নাতক ৪ বছরের সমষ্টিগত ফলাফলে সেরা ১০ এ আছেন বাংলাদেশের ৩ মেধাবী শিক্ষার্থী।

স্নাতক সেরা দশে জায়গা করে নেওয়া বাংলাদেশি শিক্ষার্থীরা হলেন- পাবনার মুহাম্মদ তাওহীদুল ইসলাম (গড় নম্বর: ৯০%, মেধা স্থান: দ্বিতীয়), ব্রাক্ষণবাড়িয়ার জাফর উল্লাহ (গড় নম্বর: ৯০%, মেধা স্থান: তৃতীয়) এবং কুমিল্লার মুহাম্মদ আবদুস সালাম (গড় নম্বর: ৮৭.৪৫%, মেধা স্থান: ষষ্ঠ)।

এছাড়াও ২০২২-২৩ শিক্ষাবর্ষে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক (সানুভি) পরীক্ষায় সেরা দশের ৭ জনই ছিল বাংলাদেশের শিক্ষার্থী। পরীক্ষায় উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের অভিনন্দন জানিয়েছেন মিশরের গ্র‌্যান্ড ইমাম ও শাইখুল আজহার ড. আহমাদ আত-তাইয়্যাব। তিনি শিক্ষার্থীদের সফলতা কামনা করে বলেন, আমি আশা করছি তারা সবাই নিজেদের দেশে ফিরে আল-আজহারের প্রতিনিধিত্ব করবে।

শুক্রবার (২৯ সেপ্টেম্বর) মিশরে বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদের সংগঠন ‘ইত্তেহাদ’-এর বার্ষিক অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত প্রধান অতিথির বক্তব্যে এই গৌরবময় ফলাফলের জন্য অভিনন্দন জানিয়ে বলেন, বাংলাদেশি কারো সফলতার কথা শুনলে গর্বে বুক ভরে যায়। আমি কৃতি শিক্ষার্থীদের উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ কামনা করছি।

এদিকে মেধা তালিকায় দ্বিতীয় স্থান অর্জনকারী শিক্ষার্থী মুহাম্মদ তাওহীদুল ইসলাম বলেন, জীবনের এই অর্জন মোটেই কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্যবস্তু নয়। তবে জীবনের পরবর্তী ধাপগুলোর জন্য এটা অনুপ্রেরণা। তৃতীয় স্থান অর্জনকারী জাফর উল্লাহ বলেন, সবার কাছে দোয়া চাই, আমি যেন দেশ-জাতি ও মুসলিম উম্মাহর জন্য কাজ করতে পারি।

মেধা তালিকায় ষষ্ঠ স্থানে থাকা শিক্ষার্থী মুহাম্মদ আবদুস সালাম বলেন, নবীনদের উদ্দেশ্যে বলতে চাই, একাডেমিক ফলাফলের সঙ্গে শাস্ত্রীয় অধ্যয়নের প্রতিও আমাদের গুরুত্ব দিতে হবে।