Bangladesh
This article was added by the user . TheWorldNews is not responsible for the content of the platform.

দলের প্রয়োজনে যেকোনো জায়গায় খেলা উচিত, তামিম প্রসঙ্গে সাকিব

ucb stock regular

তামিম ইকবালকে ছাড়াই বিশ্বকাপের দল ঘোষণা হয়েছে। দেশসেরা এই ওপেনারকে এই বিশ্ব আসরের দলে না দেখে অনেকেই অবাক হয়েছেন। দল ভারতের উদ্দেশ্যে দেশ ছাড়ার পর এই ওপেনার এক ভিডিও বার্তায় জানিয়েছেন, দলের পক্ষ থেকে তাকে আফগানিস্তানের বিপক্ষে বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচে না খেলার আহ্বান জানানো হয়েছিল।

এমনকি কয়েক ম্যাচে ওপেনিং ছেড়ে ব্যাটিং অর্ডারে নিচের দিকে খেলার প্রস্তাব দেয়া হয়েছিল তাকে। এ নিয়ে দেশ ছাড়ার আগে টি স্পোর্টসের সঙ্গে একান্ত সাক্ষাৎকারে সাকিব আল হাসান জানিয়েছেন সবার আগে দলের স্বার্থ চিন্তা করতে হবে। দলের প্রয়োজনে নিচের দিকে খেললে তামিমের খুব বেশি সমস্যা হয়ে যেত কিনা এমন প্রশ্ন রেখেছেন বাংলাদেশ অধিনায়ক।

সাকিব বলেছেন, ‘এরকম প্রস্তাব দিলে কি কোনো দোষের কিছু আছে নাকি এরকম প্রস্তাবই দেয়া যাবে না। দল আগে নাকি কোনো ব্যক্তি আগে? রোহিত শর্মা একটা প্লেয়ার ওপেনিং থেকে নাম্বার সেভেন পর্যন্ত খেলেছে। সে ১০ হাজার রান করে ফেলেছে। ও যদি তিন-চারে খেলে বা ব্যাটিং অর্ডারে ব্যাটিংয়ে নামে তাহলে কী খুব বেশি প্রবলেম হয়? এটা । আসলে আমার কাছে মনে হয় বাচ্চা মানুষের মতো… আমার ব্যাট আমিই খেলবো… আর কেউ খেলতে পারবে না। দলের প্রয়োজনে যে কারোর যে কোনো জায়গায় খেলতে রাজি থাকা উচিত। দল সবার আগে। আপনি একশো করলেন দুইশো করলেন এটা কোনো পার্থক্য গড়ে দেয় না।’

cwt

বেশ কিছুদিন ধরেই পিঠের চোটে ভুগছেন তামিম। আফগানিস্তান সিরিজে হুট করে অবসর ঘটনার পর প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপে সেই সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসেন তামিম। এরপর ইংল্যান্ডে চিকিৎসকের পরামর্শে ইনজেকশনও নিয়েছেন তিনি। এরপর নিউজিল্যান্ড সিরিজেও খেলেছেন তিনি। যদিও দুই ম্যাচ পরই অস্বস্তির কারণে বিশ্রাম নেন তিনি।

LankaBangla securites single page

মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের উদাহরণ টেনে তামিমকে নিয়ে সাকিব বলেন, ‘রিয়াদ ভাইয়ের যে ডেডিকেশন ছিল তার দলের প্রতি যে অবদান ছিল। দলের হয়ে খেলার যে ইচ্ছে ছিল সবকিছু সবাই দেখতে পেরেছে। আমার তো দায়িত্ব না পুরো দলটা নির্বাচন করার। এমনটা হলে এশিয়া কাপের একদিন পরেই এনাউন্স করে দল দিয়ে দিতে পারতাম। এটা অনেক প্রসেসের মধ্যে দিয়ে যেতে হয়। অনেক বিষয় চিন্তা করতে হয়। অনেক কিছু চিন্তা করে দলটা গড়তে হয়।’

তামিমকে আফগানিস্তানের বিপক্ষে না খেলানোর গুঞ্জনের কথা উড়িয়ে দিয়ে সাকিব বলেছেন, ‘এটা নিয়ে (তামিমকে আফগানিস্তানের বিপক্ষে না খেলানোর) আমার কোনো আলোচনাই হয়নি। এমন প্রশ্ন কোথা থেকে এসেছে আমি জানি না। যদি এমন কেউ বলে থাকে আমি নিশ্চিত এমন কেউই বলেছে যে এই দায়িত্বে আছে এটা আগে থেকেই আলাপ করে রাখছিল যেন জানা থাকলে দুই পক্ষের জন্যই ভালো হয়।’

‘এরকম কিছু বলাতে খারাপ কিছু আছে আমি মনে করি না। এটা তো কেউ কারো খারাপের জন্য বলবে না আমি নিশ্চিত। যদি কেউ বলে থাকে দলের কথা চিন্তা করেই বলেছে যে এরকম যদি আমরা কম্বিনেশন করি, এরকম অনেক কিছুই হয় ম্যাচকে কেন্দ্র করে। আপনি এরকম কম্বিনেশন বানালে কি হতো, ওরকম কম্বিনেশন বানালে কি হয়। আমার মনে হয় না এরকম আলোচনা কোনো দোষের আছে।’

অর্থসূচক/এএইচআর