Bangladesh

এটাই যেন শেষ সাফল্য না হয় : বিশ্বকাপ জয়ী আকবর

বিশ্বকাপ জয়ী দলের অধিনায়ক আকবর আলী বলেছেন, বাংলাদেশ ক্রিকেটে অনূধ্র্ব-১৯ বিশ্বকাপ জয়ই যেন শেষ সাফল্য না হয়। এই সাফল্যের ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে হবে। তাহলে বিশ্বের দরবারে দেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল হবে।

বৃহস্পতিবার দুপুরে রংপুর পাবলিক লাইব্রেরি মাঠে জেলা প্রশাসন ও জেলা ক্রীড়া সংস্থা আয়োজিত সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন।

দক্ষিণ আফ্রিকায় যুব বিশ্ব ক্রিকেটে ভারতকে হারিয়ে বিশ্বকাপ ট্রফি ওঠে আকবর আলীর হাতে।

সকাল থেকে আকবর আলীকে বরণ করে নিতে প্রস্তুত ছিল রংপুরবাসী। বিশ্বজয়ের পর এটা তার প্রথম নিজ জেলায় ফেরা। তার শৈশবের  সোনালী দিন কেটেছে রংপুর শহরের পশ্চিম জুম্মাপাড়ায়।

সকাল থেকে বহু মোটর সাইকেল, মাইক্রোবাস, পিক-আপে শত শত ক্রিকেটপ্রেমি সৈয়দপুর বিমান বন্দরে আসে। বিমানবন্দর থেকে রংপুরে আসার পথে মোড়ে মোড়ে হাত উচিয়ে ও ফুল ছিটিয়ে আকবরকে শুভেচ্ছা জানায় মানুষ।

দুপুর সোয়া ১টার দিকে নগরীর মেডিকেল মোড়ে পৌঁছে তাকে সরাসরি শহরে না ঢুকিয়ে মর্ডান মোড় হয়ে নগরীর প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে বেলা আড়াইটার দিকে সংবর্ধনার স্থল পাবলিক লাইব্রেরি মাঠে এসে পৌছায় গাড়ির বহর। ব্যান্ডপার্টির সুরেলা বাদ্যের তালে তালে তাকে বরণ করে নেয়া হয়।

গাড়ি বহরের নেতৃত্ব দেন রংপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তাফাসহ নগরীর সুধীজন। রংপুর পাবলিক লাইব্রেরি মাঠে জেলা প্রশাসন ও জেলা ক্রীড়া সংস্থা আয়োজিত সংবর্ধনায় সিক্ত হয় আকবর।

এ সময় বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক আসিব আহসান। তিনি বলেন, রংপুরের কৃতী সন্তান আকবর আলীর হাত ধরে যে সম্মান এসেছে, এ জন্য দেশবাসী গর্বিত।

অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সিটি মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফা,  ক্রিকেট বোর্ডের পরিচালক আনোয়ারুল ইসলাম, ভারপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার মারুফ হাসান, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মমতাজ উদ্দিন আহমেদ, মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক তুষার কান্তি মন্ডল প্রমুখ।

পাবলিক লাইব্রেরি মাঠে সংবর্ধনা শেষে আকবর আলী জুম্মাপাড়াস্থ নিজ বাড়িতে যান। এ সময় স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর সেকেন্দার আলীর নেতৃত্বে  সেখানে শত শত মানুষ তাকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান।

এ সময় সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন আকবর আলী। এ প্রশ্নের জবারে তিনি বলেন, মানুষের ভালোবাসায় তিনি অভিভূত। তিনি দলকে সব সময় সমর্থন দেয়ার জন্য ক্রিকেটপ্রেমিদের প্রতি আহ্বান জানান।

বৃহস্পতিবার সকালে ঢাকার শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে রওয়ানা দিয়ে দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে সৈয়দপুর বিমানবন্দরে আসেন যুব ক্রিকেটের অধিনায়ক আকবর আলী। সেখানে তাকে অভ্যর্থনা জানান  রংপুর সিটি করপোরেশনের মেয়র মোস্তাফিজার রহমান মোস্তফাসহ বিভিন্ন সামাজিক সংগঠন ও সুধীমহল।

রাতে এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে জুম্মাপাড়ায় সংবর্ধনা দেয়া হবে। সেখানে প্রস্তত হয়েছে বিশাল মঞ্চ।

আকবর আলী শিক্ষাজীবনের শুরুতে মাদ্রাসায় ভর্তি হলেও পরে বাড়ির পাশে বেগম রোকেয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে ৫ম শ্রেণি পর্যন্ত লেখাপড়া করে নগরীর লায়ন্স স্কুল অ্যান্ড কলেজে ভর্তি হন। ক্লাস সিক্সে উঠে রংপুরের অসীম মেমোরিয়াল ক্রিকেট একাডেমিতে ভর্তি হন।

২০১২ সালে বিকেএসপিতে সুযোগ পান। বিকেএসপির বয়সভিত্তিক দলে খেলে সুযোগ পেয়ে যান জাতীয় অনূর্ধ্ব-১৭ দলে। নেতৃত্ব দেয়ার অভিজ্ঞতাও হয় সেখান থেকে। ২০১৬ সালে এসএসসি পরীক্ষার সময় চলছিল প্রথম বিভাগ ক্রিকেট লিগ। তখন খেলা ও লেখাপড়া দুটি সামলেছেন দারুণ মনোযোগে। এসএসসিতে জিপিএ-৫ পান তিনি। এইচএসসিতে জিপিএ ৪.৪২।

রংপুর/নজরুল মৃধা/বকুল