Bangladesh
This article was added by the user . TheWorldNews is not responsible for the content of the platform.

ঈদের ছুটির মতো ফাঁকা রাজধানীর রাজপথ

ঈদের ছুটির মতো ফাঁকা রাজধানীর রাজপথ

ঈদের ছুটির মতো ফাঁকা রাজধানীর রাজপথ

এমটিনিউজ২৪ ডেস্ক : পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী এবং সাপ্তাহিক দুইদিনের ছুটি মিলিয়ে মোট তিনদিনের ছুটিতে গেছে দেশ। এতে যেন নগরের ব্যস্ততম জীবনে স্বস্তি নেমে এসেছে। টানা তিনদিনের ছুটি কাজে লাগিয়ে রাজধানী ছেড়েছেন অনেক মানুষ। কেউ গেছেন গ্রামের বাড়িতে আবার কেউবা পরিবার নিয়ে বেড়াতে গেছেন কোনো পর্যটন এলাকায়। এর ফলে রাজধানীর সড়কে কমেছে মানুষের চাপ। এতে করে সড়কে চিরচেনা যানজট ও কোলাহলের চিত্রে কিছুটা ভিন্নতা দেখা গেছে। 

বৃহস্পতিবার (২৮ সেপ্টেম্বর) সকাল থেকে রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে, সড়কে নেই কোনো যানজট। গণপরিবহনে ওঠার জন্য নেই কোনো হুড়াহুড়ি-ঠেলাঠেলি। সবমিলিয়ে টানা ছুটিতে ফাঁকা রাজধানীর রাজপথ।

কুড়িল, বাড্ডা, রামপুরা, শান্তিনগর ও পল্টন এলাকায় ঘুরে দেখা যায়, সকাল থেকে ঢাকার রাজপথে যানবাহন ও যাত্রীদের উপস্থিত খুবই কম। সাধারণত বৃহস্পতিবারে ঢাকার রাস্তাঘাটে যানবাহন ও যাত্রীদের প্রচুর চাপ থাকে। কিন্তু আজ সেই চিত্র নেই। রাস্তায় হাতে গোনা কয়েকটি গণপরিবহন চলছে, এসব বাসেও খুব বেশি যাত্রী নেই। অন্যদিকে, রাস্তায় কিছু ব্যক্তিগত যানবাহন, সিএনজিচালিত অটোরিকশা ও রিকশার চলাচল রয়েছে।

যাত্রীরা বলছেন, টানা ছুটিতে রাস্তা প্রায় ঈদের ছুটির মতো ফাঁকা রয়েছে। এক ঘণ্টার রাস্তা এখন ১০-১৫ মিনিটেই ভ্রমণ করা যাচ্ছে। কুড়িল থেকে বাসে উঠে মাত্র ২০ মিনিটে রামপুরা আবুল হোটেলের সামনে পৌঁছেছেন মো. মনির নামের এক ব্যক্তি। তিনি জানান, ব্যবসায়িক কাজে প্রায়ই তাকে কুড়িল থেকে আবুল হোটেল এলাকায় আসতে হয়। অন্য দিনগুলোতে এই রাস্তা দিয়ে আসতে ঘণ্টার বেশি সময় লেগে যায়। কিন্তু আজ মাত্র ২০ মিনিটে চলে এসেছেন।

এদিকে, ফাঁকা রাস্তায় রিকশায় চড়ে বেড়াতে বের হয়েছেন অনেকে। তাদের উদ্দেশ্য হলো, দুপুর হওয়ার আগেই শপিং মল, সিনেমা হল কিংবা অন্য কোনো স্থানে যাওয়া।সকাল ৯টায় মেরুল বাড্ডা এলাকা থেকে রিকশায় উঠেছেন মো. হামিদ ও তার স্ত্রী মহিমা আক্তার। তারা জানান, আজ ছুটির দিনে রাস্তা ফাঁকা হওয়ায় রিকশায় চড়ে ঘুরতে বের হয়েছেন। ফাঁকা রাস্তায় রিকশায় চড়ে একটু ঘুরবেন আর আশপাশের কাঁচাবাজার থেকে কিছু কেনাকাটাও করবেন।

টানা ছুটিতে রাস্তা ফাঁকা থাকার ব্যাপারে গণপরিবহনের চালকরা বলছেন, বৃহস্পতিবার ও শুক্রবারে রাস্তার অবস্থা একই থাকবে। শনিবারে অনেক বেসরকারি অফিস খুললে তখন যাত্রীর সংখ্যা বাড়বে।

সদরঘাট থেকে উত্তরাগামী ভিক্টর ক্লাসিক পরিবহনের চালক মো. জুয়েল বলেন, আজকে রাস্তা পুরোটাই ফাঁকা। কোনো যানজট ছাড়াই রাস্তায় চলাচল করা যাচ্ছে। কিন্তু বাসে যাত্রী নেই। যাত্রী না থাকলে তো আমাদের সমস্যা। যাত্রী কম থাকার কারণে আজ রাস্তায় বাস অনেক কম। শুক্রবারও একই অবস্থা থাকবে। তবে শনিবারে অনেক বেসরকারি অফিস খুললে তখন কিছুটা যাত্রী পাওয়া যাবে।

ছুটির দিনে রাস্তার পরিস্থিতি নিয়ে রাজধানীর বাড্ডায় কর্মরত এক ট্র্যাফিক সার্জেন্ট নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, গতকাল (বুধবার) অনেক মানুষ ঢাকা ছেড়েছে। সে কারণে রাস্তায় গাড়ির অনেক চাপ ছিল। কিন্তু আজ থেকে টানা তিনদিনের ছুটি শুরু হওয়ায় রাস্তায় গাড়ির চাপ অনেক কমে গেছে। যানজট নেই বললেই চলে। তবে বিকেলের দিকে গাড়ির চাপ কিছুটা বাড়তে পারে, কারণ ছুটির দিনে অনেক মানুষ বিভিন্ন জায়গায় ঘুরতে বের হবেন।