Bangladesh
This article was added by the user . TheWorldNews is not responsible for the content of the platform.

ক্রিকেটে ঘটা ৫ অবিশ্বাস্য ঘটনা!

ক্রিকেটে ঘটা ৫ অবিশ্বাস্য ঘটনা!

ক্রিকেটে ঘটা ৫ অবিশ্বাস্য ঘটনা!

এক্সক্লুসিভ ডেস্ক : ক্রিকেট এমন এক খেলা যা মাঠের খেলোয়াড় সহ মাঠের বাইরে দর্শকদের মধ্যে উত্তেজনা তৈরি করে। ক্রিকেট এর মাঝে এরকম অনেক অবিশ্বাস্য ঘটনা ঘটেছে যা সহজে ভুলে যাওয়ার নয়। এরকম পাঁচটি ঘটনা নিয়ে আজকের আর্টিকেলে বিস্তারিত আলোচনা করা হবে।

১৯৯৯ বিশ্বকাপ সেমিফাইনাল
এই ম্যাচে ইংল্যান্ড এবং দক্ষিণ আফ্রিকা পরস্পরের মুখোমুখি হয়েছিল। ওই ম্যাচে বৃষ্টি আসার কারণে দক্ষিণ আফ্রিকার বড় ক্ষতি হয়ে যায়। দক্ষিণ আফ্রিকা জয়ের পথেই ছিল। বৃষ্টি থামার পর তাদের সামনে সমীকরণ দাঁড়ায় এরকম যে এক বলে ২২ রান করতে হবে। তবে বর্তমানে ডার্ক লুইস মেথডের মত অত্যাধুনিক উদ্ভাবন তখন ছিল না। তা না হলে ফলাফল ভিন্ন রকম আসতে পারতো।

১৯৯৬ বিশ্বকাপ সেমিফাইনাল
এই ম্যাচে ভারত এবং শ্রীলংকা পরস্পরের মুখোমুখি হয়েছিল। শ্রীলঙ্কার ছুঁড়ে দেওয়া ২৫২ রানের টার্গেট তাড়া করতে নেমে ভালোই খেলছিল ভারতের ব্যাটসম্যানরা। হঠাৎ করে অল্প সময়ের মাঝে ৭টি উইকেট হারিয়ে ফেলে ভারত। ইডেন গার্ডেনের দর্শকরা পানির বোতল সহ অনেক কিছু মাঠে ছুঁড়ে ফেলতে থাকে এবং অরাজগতার পরিবেশ তৈরি করে। এর ফলে ম্যাচ ওখানেই থেমে যায় এবং শ্রীলঙ্কাকে বিজয় ঘোষণা করা হয়।

১৯৯৯- দ্বিপাক্ষিক সিরিজ
এই সিরিজে ওয়েস্ট ইন্ডিজ এবং অস্ট্রেলিয়া পরস্পরের মুখোমুখি হয়েছিল। পঞ্চম ম্যাচে বৃষ্টির কারণে খেলা ৩০ ওভারে নামিয়ে আনা হয়। দ্বিতীয় ইনিংসে তাড়া করতে নেমে অস্ট্রেলিয়ার দরকার ছিল শেষ এক বলে চার রান। বাউন্ড্রির দিকে বল মেরে অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটসম্যানরা তিনবারের মতো জায়গা পরিবর্তন করতে সক্ষম হয়। তখন উৎসুক দর্শকরা মাঠের মধ্যে প্রবেশ করলে দক্ষিণ আফ্রিকা এর খেলোয়াড় মনে করে তারা বিজয়ী হয়েছে। পরবর্তী সময়ে ম্যাচটিকে টাই ঘোষণা করা হয়।

২০০৬ টেস্ট সিরিজ
ইংল্যান্ড এবং পাকিস্তান পরস্পরের মুখোমুখি হয়েছিল। ওভালে স্বাগতিক ইংল্যান্ডের সাথে খেলার সময় পাকিস্তানের বিরুদ্ধে বল টেম্পারিং এর অভিযোগ আনেন আম্পায়ার। এর ফলে চা বিরতির প্রতিবাদে ইনজামামুল হক দল নিয়ে মাঠে না নামার সিদ্ধান্ত নেন।

২০১৯ বিশ্বকাপ ফাইনাল
ইংল্যান্ড এবং নিউজিল্যান্ড পরস্পরের মুখোমুখি হয়েছিল। এ ফাইনাল ম্যাচটি সুপার ওভারে গড়িয়েছিল। সুপার ওভারে উভয় দল সমান সংখ্যক রান করেছিল। তবে ইংল্যান্ডের বাউন্ডারি বেশি হওয়ায় তাদের বিজয়ী ঘোষণা করা হয়েছিল। এ বিষয়টি নিয়ে বিতর্ক তৈরি হয়েছিল।