আশা ছিল লেখাপড়া শেষ করে বড় চাকরি করবেন। সেই স্বপ্নকে বাস্তবায়ন করতেই সার্টিফিকেটের ফাইল হাতে ইন্টারভিউ দিতে ছুটছিলেন বিভিন্ন কোম্পানিতে, দিচ্ছিলেন নিয়োগ পরীক্ষাও।

ঢাকার কেরানীগঞ্জের শুভাঢ্যা উত্তর পাড়ার বাসিন্দা জুয়েল রানা (২৮) এভাবেই একের পর এক চাকরির চেষ্টা করছিলেন। তবে বেঁচে থাকা অবস্থায় চাকরিটা আর পাননি তিনি।

একটি চাকরির ইন্টারভিউ দিতে গিয়ে বৃহস্পতিবার (২৩ সেপ্টেম্বর) বাসচাপায় পথেই প্রাণ হারিয়েছেন জুয়েল। কিন্তু নিয়তির নির্মম পরিহাস, ওইদিনই জুয়েলের পরিবার জানতে পারে একটি সরকারি চাকরি পেয়েছেন তিনি।

জানা গেছে, জুয়েল স্থানীয় সরকার প্রকৌশল বিভাগে হিসাব সহকারী পদে চাকরির জন্য মনোনীত হয়েছেন। তার মৃত্যুর দিন বিকেলেই স্থানীয় সরকার প্রকৌশল বিভাগের ওয়েবসাইটে জুয়েলের রোল নম্বর প্রকাশ করে।

জুয়েলের বাবা মো. বাবুল বলেন, আমার ছেলে সরকারি চাকরির জন্য অনেক চেষ্টা করেছে। বেঁচে থাকতে তার চাকরি হয়নি অথচ তার মরদেহ দাফনের পর চাকরির খবর পেলাম।

জুয়েলের বন্ধু আসিফ জানান, জুয়েল এ চাকরির বিষয়ে খুবই আশাবাদী ছিল। সে ভাইভা দিয়ে এসে বলেছিল এবার তার চাকরিটা হয়ে যেতে পারে। চাকরিও হলো, কিন্তু জুয়েল তার চাকরির খবরটা জেনে যেতে পারলো না।

অর্থসূচক/কেএসআর