Bangladesh
This article was added by the user . TheWorldNews is not responsible for the content of the platform.

প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষে ডিএনসিসিতে সাত দিনব্যাপী চিত্রকর্ম প্রদর্শনী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৭তম জন্মদিন উপলক্ষে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন এক ভিন্নধর্মী আয়োজন করেছে। গুলশানে ডিএনসিসির নগর ভবনের ৬ষ্ঠ তলায় ‘আগামীর অনুপ্রেরণা’ শিরোনামে প্রধানমন্ত্রীর ৭৭তম জন্মদিন উপলক্ষে ৭৭ জন চিত্রশিল্পীর আঁকা প্রধানমন্ত্রীর ৭৭টি প্রতিকৃতি প্রদর্শনীর আয়োজন করে নগর কর্তৃপক্ষ।

বৃহস্পতিবার (২৮ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় নগর ভবনে ঢাকাস্থ বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূতদের উপস্থিতিতে উদ্বোধন হয়েছে এই প্রদর্শনী। বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হওয়া এই প্রদর্শনী চলবে সাতদিন। প্রদর্শনীটি সকাল ১১টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত সবার জন্য উন্মুক্ত থাকবে।

প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষে আয়োজিত চিত্র প্রদর্শনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ডিএনসিসির মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম, পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম, বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহ্‌মেদ পলক। অনুষ্ঠানে ঢাকায় নিযুক্ত জাপান, ইতালি, সুইজারল্যান্ড, আলজেরিয়া, মরক্কো, থাইল্যান্ড, শ্রীলঙ্কা ও নেপালের রাষ্ট্রদূতসহ আরও প্রায় ৫০টি দেশের রাষ্ট্রদূত ও প্রতিনিধি উপস্থিত ছিলেন।

এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন ঢাকায় অবস্থিত অন্তত দশটি জাতিসংঘের অঙ্গ সংস্থা এবং আন্তর্জাতিক সংস্থার প্রধানসহ অন্যান্য প্রতিনিধিবৃন্দ।

সভাপতির বক্তৃতায় ডিএনসিসি মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে শ্রদ্ধা জানাতে এই ভিন্নধর্মী আয়োজনের উদ্যোগ। প্রধানমন্ত্রী কেক কেটে জন্মদিন আয়োজন একদম পছন্দ করেন না। তাই প্রধানমন্ত্রীর ৭৭তম জন্মদিন উপলক্ষ্যে ৭৭জন চিত্রশিল্পীর মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রীর ৭৭টি প্রতিকৃতি অংকন করে এবার জন্মদিন উদযাপন করার পদক্ষেপ নিয়েছি। ৭৭টি প্রতিকৃতি ৭ দিনব্যাপী প্রদর্শন করা হবে। বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূতরা যেহেতু ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন এলাকায় বসবাস করেন তাই তাদের এই অনুষ্ঠানে যুক্ত করার সুযোগ পেয়েছি। এ ধরনের আয়োজন সকলের মধ্যে সম্পর্ক উন্নয়ন আরও তরান্বিত করবে।

ডিএনসিসি মেয়র আরও বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে বাংলাদেশ এগিয়ে চলেছে। দেশের উন্নয়নের সঙ্গে ঢাকাকে একটি আদর্শ স্মার্ট নগরী হিসেবে গড়ে তুলতে ডিএনসিসিও নানা পদক্ষেপ গ্রহণ করছে। মাঠ পার্ক নির্মাণ, বৃক্ষরোপণ, অনলাইন হোল্ডিং ট্যাক্স, অনলাইন ট্রেড লাইসেন্স, সবার ঢাকা অ্যাপে অভিযোগ গ্রহণসহ নাগরিক সেবা নিশ্চিত করতে আন্তরিকভাবে কাজ করছে ডিএনসিসি। পরিবেশবান্ধব বর্জ্য থেকে বিদ্যুৎ প্রকল্পের কাজও শুরু হয়েছে, কল্যাণপুরে নির্মাণ হবে হাইড্রো ইকো পার্ক।

আগত রাষ্ট্রদূতদের উদ্দেশে মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেন, বিভিন্ন দেশের মেয়রগণ অনেক উত্তম কার্যক্রম গ্রহণ করে নাগরিকদের সেবা প্রদান করছে। আমি আহ্বান করছি উত্তম কার্যক্রমের ধারণা ও নলেজ আমাদেরকে শেয়ার করবেন। এতে আমরা আমাদের সিটিকে আরও সমৃদ্ধ করতে পারবো। সবার সহযোগিতায় ও পরামর্শে একটি সুস্থ, সচল, আধুনিক স্মার্ট ঢাকা গড়ে তুলতে পারবো।

এমকে