Bangladesh
This article was added by the user . TheWorldNews is not responsible for the content of the platform.

যে শহরে গত ৭০ বছরেও কেউ মারা যায়নি! জানুন রহস্য

যে শহরে গত ৭০ বছরেও কেউ মারা যায়নি! জানুন রহস্য

যে শহরে গত ৭০ বছরেও কেউ মারা যায়নি! জানুন রহস্য

এক্সক্লুসিভ ডেস্ক : পৃথিবীতে রহস্যের শেষ নেই। এই প্রতিবেদনে এমন একটি শহরের কথা বলা হয়েছে যেখানে গত ৭০ বছর ধরে কেউ মারা যায়নি। এটা শুনে অদ্ভুত মনে হলেও, ঘটনাটা একেবারেই সত্যি। আসলে নরওয়ের লং ইয়ারবেন শহরের কথা বলা হয়েছে, যেখানে গত সাত দশকে কেউ মারা যায়নি।

শুনে অদ্ভুত লাগলেও, এটা সত্যি যে লং ইয়ারবেন শহরে মারা যাওয়া নিষিদ্ধ। জানিয়ে রাখি, নরওয়ে (Norway) ‘মিডনাইট সান’ অর্থাৎ মধ্যরাত্রির সূর্যের দেশ নামেও পরিচিত। এদেশের বছরের মে মাস থেকে জুলাইয়ের শেষ পর্যন্ত সূর্য অস্ত যায় না। এখানে একটানা ৭৬ দিন হয়, এই সময় রাত নামে না।

এই শহরের প্রশাসন একটি আইন জারি করেছে যে এখানে মৃত্যুবরণ করা নিষিদ্ধ। আসলে, নরওয়ের লং ইয়ারবেন শহরটিতে সারা বছর প্রচন্ড ঠান্ডা থাকে, যার কারনে এখানে মৃতদেহ পচে না। তাই এখানকার প্রশাসন মানুষের মৃত্যু নিষিদ্ধ করেছে। আশ্চর্যের বিষয় হলো, এই শহরে গত ৭০ বছরে কেউ মারা যায়নি।

সর্বশেষ যিনি মারা গিয়েছিলেন তা ১০০ বছর আগে। ১৯১৭ সালে এখানে একজন ব্যক্তি মারা যান, যিনি ইনফ্লুয়েঞ্জায় ভুগছিলেন। এরপর তার দেহটি ওই শহরে সমাধিত করা হয়েছিল। তবে তার শরীরের এখনো ইনফ্লুয়েঞ্জা ভাইরাস রয়েছে। এ কারণে যে কোনও মহামারী থেকে শহরকে রক্ষা করতে প্রশাসন এখানে মৃত্যুবরণ করা নিষিদ্ধ করেছে।

এই শহরে প্রায় ২০০০ জন খ্রিস্টান ধর্মের লোক বসবাস করেন। এখানে কোনও ব্যক্তি অসুস্থ হলে তাকে সাথে সাথে বিমানে করে অন্য জায়গায় নিয়ে যাওয়া হয়। যাতে এই শহরে তার মৃত্যু না ঘটে। এরপর সেই ব্যক্তি অন্য স্থানে মারা গেলে সেখানেই তার শেষকৃত্য সম্পন্ন হয়।