Bangladesh

আ.লীগের সঙ্গে নির্বাচন হয়নি, হয়েছে রাষ্ট্রযন্ত্রের সাথে: ডা. শাহাদাত

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন (চসিক) নির্বাচন শেষে বিএনপির প্রার্থী ডা. শাহাদাত হোসেন বলেছেন, আমরা আশা করেছিলাম একটি সুষ্ঠু নির্বাচনের মাধ্যমে আমরা মানুষের ভোটের অধিকার ফিরিয়ে দিতে পারবো। কিন্তু আজকে আওয়ামী লীগের সঙ্গে নির্বাচন হয়নি, নির্বাচন হয়েছে রাষ্ট্রযন্ত্রের সাথে। কেন্দ্রে কেন্দ্রে ভোটার ও ধানের শীষের এজেন্টরা পুলিশের কাছে অসহায় ছিল। আজকের নির্বাচন নির্যাতনে পরিণত হয়েছে। এ অনির্বাচত সরকারের ভোট ডাকতির ইতিহাস চসিক নির্বাচনের মাধ্যমে উন্মোচিত হয়েছে।

বুধবার (২৭ জানুয়ারি) বিএনপির দলীয় কার্যালয়ে নির্বাচন পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।
সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী। তিনি অভিযোগ করেন, মক ভোটিংয়ের নামে আগের দিন নৌকা মার্কায় অনেক ভোট সংরক্ষণ করে রাখা হয়েছিল। মাইক্রো চিপের মাধ্যমে সেগুলো সংরক্ষণ করে এখন ভোটগুলো তাদের পক্ষে কাস্টিং দেখানো হচ্ছে। কোথাও দেখা গেছে, ইভিএম মেশিনে ধানের শীষ বাটন নষ্ট ছিল। আবার কিছু কিছু কেন্দ্রে ধানের শীষে চাপলে আম মার্কা দেখানো হয়েছে। কয়েকটি কেন্দ্রে তারা আগের রাতে জোর করে ঢুকে প্রিসাইডিং অফিসার, পোলিং এজেন্টসহ ভোট আগে ভাগে কাস্ট করে নিয়েছে। দিনের বেলায় আমরা দেখেছি আঙ্গুলের ছাপ নিয়ে ইভিএম মেশিনের প্যানেল ওপেন করে নিজেরা ভোট দিয়ে দিয়েছে।

কেন্দ্র দখলের বিষয়ে তিনি বলেন, ‘নির্বাচনকে ঘিরে চট্টগ্রামকে সন্ত্রাসীর মিলনমেলায় পরিণত করেছে। সেই সন্দ্বীপ উপজেলা থেকে শুরু করে কক্সবাজার জেলা, ফেনী থেকে শুরু করে চট্টগ্রামের আশপাশে সকল জেলা উপজেলায় যত সন্ত্রাসী আছে, তারা এসে অস্ত্র হাতে নিয়ে মহড়া দিয়েছে। ৭শ’ কেন্দ্রের মধ্যে ৫শ’র বেশি কেন্দ্র তারা দখল করেছে। যেখানে বিএনপি নেতাকর্মীদের সঙ্গে আওয়ামী সন্ত্রাসীরা পারবে না সেখানে পুলিশ প্রশাসন দিয়ে ওইসব কেন্দ্র দখল করেছে। হালিশহরে ওসি নিজে উপস্থিত থেকে কেন্দ্র দখল করেছে।’

তিনি আরও বলেন, আওয়ামী লীগের নির্বাচনি প্রজেক্টের আওতায় চট্টগ্রাম সিটি নির্বাচনে আওয়ামী আইনশৃঙ্খলা বাহিনী তাদের পরিপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছে।

গণতান্ত্রিক ধারাকে অব্যাহত রাখতে বিএনপি নির্বাচনে অংশ নিয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, আমাদের গণতন্ত্রে আস্থা থাকলেও, আওয়ামী লীগের নেই। জনগণের ওপর তাদের আস্থাহীনতা এবং নির্বাচনের ওপর দুর্বলতার কারণে তারা নির্বাচন সুষ্ঠু হোক তা চায় না। আওয়ামী লীগ এ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে চট্টগ্রামকে সন্ত্রাসীর মিলনমেলায় পরিণত করেছে। চট্টগ্রামের আশে পাশের জেলা থেকে বহিরাগত ও সন্ত্রাসী এনে অস্ত্র শস্ত্রের মহড়া দিয়েছে। তারা ৫০০ এর অধিক কেন্দ্র দখল করেছে। আর তাতে প্রত্যক্ষ সহযোগিতা দিয়েছে আওয়ামী পুলিশ। ওসিরা কেন্দ্রে কেন্দ্রে গিয়ে নিজেরা আমাদের এজেন্টদের বের করে দিয়েছে। এবার ভোট ডাকাতির সাথে যুক্ত হয়েছে চরম নিপীড়ন নির্যাতন। এসব নির্বাচন অর্থহীন। এ সরকারের অধীনে আর কোনও নির্বাচন হবে না।

ফলাফল প্রত্যাখ্যানের বিষয়ে জানতে চাইলে আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেন, আমরা মনে করছি এখানে নির্বাচনই হয়নি। যেখানে নির্বাচন হয়নি সেখানে বর্জনের প্রশ্নই আসে না। যেখানে নির্বাচনই হয়নি সেখানে ফলাফল প্রত্যাখ্যানের কী আছে?

Football news:

Ole Gunnar Solskjaer: Manchester United are waiting for three important weeks, matches with Chelsea, Leicester. We are confident in ourselves
Gattuso on Granada: If Napoli were killing time like this, we would have been smeared in the press
Dzeko is Roma's top scorer in European competitions. He scored the 29th goal and beat Totti
Mikel Arteta: We got to give them two goals. Would hate to fly out of the Europa League
Milan kicked 18 penalties for the season. This is the best result in the top 5 leagues in Europe
Man City can offer Borussia more than 100 million pounds for Holand and Reina. The club is exploring this possibility (90min)
Ajax have won 11 matches in a row. The last defeat against Atalanta in December