logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo
star Bookmark: Tag Tag Tag Tag Tag
Bangladesh

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ঝোপ থেকে নবজাতক উদ্ধার

উদ্ধার হওয়া শিশুব্রাহ্মণবাড়িয়ায় কাপড় দিয়ে মুড়িয়ে রাখা অবস্থায় ঝোপ থেকে এক নবজাতককে (কন্যা শিশু) উদ্ধার করেছে পুলিশ। মঙ্গলবার (১৪ জানুয়ারি) সকালে কুমিল্লা-সিলেট মহাসড়কের পৈরতলা গ্রামের আনসার ক্যাম্প এলাকা থেকে শিশুটিকে উদ্ধার করা হয়। বর্তমানে শিশুটিকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালে রেখে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, স্থানীয় দুই কিশোর ঘুঘুর ফাঁদ পাতার জন্যে আনসার ক্যাম্পের পাশে বালির মাঠ এলাকায় যায়। এসময় তারা কাঁথায় মোড়ানো অবস্থায় এক নবজাতকের কান্নার শব্দ শুনতে পায়। পরে ওই দুই কিশোর বিষয়টি স্থানীয়দের জানালে উৎসুক জনতার ভিড় জমে যায়।

স্থানীয় চা দোকানি সুমন মিয়া জানান, নবজাতক শিশুটি কাঁথায় মোড়ানো অবস্থায় বালির মাঠের পাশে কলা গাছের ঝোপের মধ্যে কান্না করছিল। দেখে মনে হয়েছে কোনও ধণাঢ্য পরিবারের শিশু। শীতের কারণে শিশুটি কষ্ট পাচ্ছিলো। তবে কে বা কারা, কি কারণে শিশুটিকে এ অবস্থায় ফেলে গেছেন বিষয়টি বোধগম্য না।

ট্রাফিক পুলিশের সহকারী উপপরিদর্শক শরিফুল ইসলাম জানান, ওই এলাকায় দায়িত্ব পালনকালে দুই কিশোর এসে ঝোপের মধ্যে বাচ্চা পাওয়ার খবর জানায়। পরে আমি এ সস্পর্কে পুলিশ কন্ট্রোলকে খবর দেই। খবর পেয়ে সকাল সাড়ে ৮টার দিকে সদর থানা পুলিশ গিয়ে কাপড় দিয়ে মুড়িয়ে রাখা অবস্থায় ওই নবজাতককে উদ্ধার করে। বর্তমানে শিশুটি ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের তত্ত্বাধায়ক ডা. মো. শওকত হোসেন জানান, সকালে পুলিশ বাচ্চাটিকে হাসপাতালে ভর্তি করে। শীতে তার শরীরের তাপমাত্রা কমে গিয়েছিলো। তাকে প্রয়োজনীয় চিকিৎসা দেওয়ার পর বর্তমানে সে ভালো আছে। বাচ্চাটির প্রতি বিশেষ নজর রাখা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, বাচ্চাটি পুরোপুরি সুস্থ হওয়ার পর তাকে কোথায় নেওয়া হবে সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবে পুলিশ।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মুহাম্মদ সেলিম উদ্দিন বলেন, ধারণা করা হচ্ছে সোমবার রাতে জন্ম হওয়ার পরই বাচ্চাটিকে এখানে কেউ কাথাদিয়ে মুড়িয়ে ফেলে দিয়েছে। খবর পেয়ে সকালে পুলিশ গিয়ে নবজাতকটিকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসে। শিশুটি হাসপাতালের তৃতীয় তলায় শিশু ওয়ার্ডে ভর্তি আছে।

Themes
ICO