Bangladesh
This article was added by the user . TheWorldNews is not responsible for the content of the platform.

কারাবাখে বিচ্ছিন্নতাবাদী নেতা আটক

বিতর্কিত নাগোরনো-কারাবাখ অঞ্চলের বিচ্ছিন্নতাবাদী সরকারের সাবেক প্রধানকে আটক করেছে আজারবাইজান।

প্রতিবেশী আর্মেনিয়ায় পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টার সময় বুধবার আজারি সেনারা তাকে আটক করে।খবর আল জাজিরার।

এর আগে গত সপ্তাহে সামরিক অভিযান চালিয়ে বিচ্ছিন্ন নাগোরনো-কারাবাখের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নেয় আজারবাইজান।

আজারবাইজান নাগোরনো-কারাবাখের বিচ্ছিন্নতাবাদী সরকারের সাবেক প্রধান রুবেন ভারদানিয়ানকে গ্রেপ্তার করেছে। গত সপ্তাহে আজারবাইজানের সামরিক অভিযানের পরে এই অঞ্চল থেকে পলায়নরত আরও কয়েক হাজার লোকের সঙ্গে প্রতিবেশী আর্মেনিয়ায় পালানোর চেষ্টা করেছিলেন তিনি।

পরে বুধবার আজারবাইজানের বর্ডার গার্ড সার্ভিস রুবেন ভারদানিয়ানকে গ্রেপ্তারের ঘোষণা দেয়। আজারবাইজান সামরিক হামলা চালিয়ে নাগোরনো-কারাবাখের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে নেয়ার পর অঞ্চলটি ছেড়ে পালিয়ে যাচ্ছেন হাজার হাজার জাতিগত আর্মের্নীয়। আজারবাইজানের নিয়ন্ত্রণে থাকতে অনিচ্ছুক এসব আর্মেনিয়ানদের মধ্যে ৫০ হাজার ইতোমধ্যেই আর্মেনিয়ায় পাড়ি জমিয়েছেন।

আল জাজিরা বলছে, রুবেন ভারদানিয়ান একজন ধনাঢ্য ব্যবসায়ী এবং একইসঙ্গে রাশিয়ায় তিনি একটি বড় বিনিয়োগ ব্যাংকেরও মালিক।

২০২২ সালে তিনি নাগোরনো-কারাবাখে চলে আসেন এবং বেশ কয়েক মাস সেখানকার আঞ্চলিক সরকারের প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। অবশ্য চলতি বছরের শুরুতে সেই পদ থেকে পদত্যাগ করেন তিনি।

ভারদানিয়ানের স্ত্রী ভেরোনিকা জোনাবেন্ড তার টেলিগ্রাম চ্যানেলে বলেছেন, গত সপ্তাহে আজারবাইজান হামলা চালিয়ে কারাবাখের নিয়ন্ত্রণ ফিরিয়ে নেয়ার পরে জাতিগত আর্মের্নীয়দের সঙ্গে পালানোর চেষ্টা করার সময় তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

আজারবাইজানের বর্ডার গার্ড সার্ভিস বলেছে, গ্রেপ্তারের পর আঞ্চলিক সরকারের সাবেক প্রধান রুবেন ভারদানিয়ানকে রাজধানী বাকুতে নিয়ে যাওয়া হয়েছে এবং অন্য রাষ্ট্রীয় সংস্থার কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

নাগোরনো-কারাবাখ আজারবাইজানের অংশ হিসেবে আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত হলেও সেখানে বসবাসকারী ১ লাখ ২০ হাজার জাতিগত আর্মেনিয়ানরা এতোদিন এই অঞ্চলে আধিপত্য বিস্তার করছিল। বাকু ও ইয়েরেভান কয়েক দশক ধরে এই অঞ্চলের নিয়ন্ত্রণের জন্য লড়াই করছে এবং দেশ দুটি একে অপরের সঙ্গে দুটি যুদ্ধও করেছে।

অবশ্য এই অঞ্চল আজারবাইজান দখলে নেয়ার পর হাজার হাজার জাতিগত আর্মেনিয়ান নাগোরনো-কারাবাখ থেকে পালিয়ে যাচ্ছেন। কারাবাখ থেকে আর্মেনিয়ার দিকে যাওয়ার রাস্তায় শত শত গাড়ির লাইনও পড়ে গেছে। আজারবাইজান বলছে, তাদের অধীনে কারাবাখের বাসিন্দারা নিরাপদ থাকবে, কিন্তু আর্মেনিয়ার প্রধানমন্ত্রীর দাবি, সেখানে ‘জাতিগত নির্মূল অভিযান’ শুরু হয়ে গেছে।

কারাবাখ কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, এ পর্যন্ত ৫০ হাজারেরও বেশি লোক চলে গেছে। তবে জাতিগত নির্মূলের আর্মেনিয়ান অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছে আজারবাইজান।

এমকে