Bangladesh
This article was added by the user . TheWorldNews is not responsible for the content of the platform.

শেখ হাসিনাকে হত্যা করে আ.লীগকে নিশ্চিহ্ন করতে চেয়েছিল

শেখ হাসিনাকে হত্যা করে আ.লীগকে নিশ্চিহ্ন করতে চেয়েছিল

আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা মণ্ডলীর সদস্য, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক উপ-কমিটির সভাপতি ও সাবেক পেট্রোবাংলা চেয়ারম্যান ড. হোসেন মনসুর বলেছেন, বিএনপি-জামায়াত শেখ হাসিনাকে হত্যা করে আওয়ামী লীগকে নিশ্চিহ্ন করতে চেয়েছিল। বিদেশিদের নীল নকশায় ১৫ আগস্ট জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে হত্যার পর তারা মনে করে আর কখনও আওয়ামী লীগ এদেশে রাজনীতি ও রাষ্ট্র পরিচালনার আসতে পারবে না। সবাইকে হত্যা করলেও শেখ হাসিনা ও শেখ রেহানার দেশের বাইরে থাকায় তারা প্রাণে বেঁচে যান। আল্লাহ অসীম কৃপায় তিনি আজ বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী ও সফল রাষ্ট্রনায়ক।

শুক্রবার (২৯ সেপ্টেম্বর) বঙ্গবন্ধুকন্যা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৭তর জন্মদিন পালন উপলক্ষে তাড়াশ উপজেলা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

তাড়াশ উপজেলা আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. আব্দুস সামাদ খন্দকারের সভাপতিত্বে সিরাজগঞ্জ-৩ (তাড়াশ রায়গঞ্জ ও সলঙ্গা) আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য অধ্যাপক ডাক্তার মো. আব্দুল আজিজ এমপি বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে হত্যা করে খ্যান্ত হয়নি। শেখ হাসিনা দেশে আসার পর তাকে সভা-সমাবেশ করতে দেয়া হয়নি। তাছাড়া তাকে হত্যা করার জন্য বিভিন্ন সময় বিভিন্ন নীল নকশার তৈরি করেছে। আওয়ামী লীগের সভানেত্রীকে হত্যার উদ্দেশ্যে ২১ আগস্ট শান্তিপূর্ণ সমাবেশে গ্রেনেড হামলা চালিয়ে তাকে হত্যা করতে চেয়েছিল। কথায় আছে রাখে আল্লাহ মারে কে। আওয়ামী লীগের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতারা সেদিন মানব ঢাল তৈরি করায় শেখ হাসিনা সেদিন প্রাণে বেঁচে যান। আগামী দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে আবারও দেশি-বিদেশি ষড়যন্ত্রে বিএনপি-জামায়াত লিপ্ত রয়েছে। নির্বাচন ঠেকানোর নামে আবারও তারা আগুন সন্ত্রাসের কর্মকাণ্ড করছে। জনগণ আজ শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ। তাই আগামী দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নৌকার বিজয় ঠেকাতে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড চালিয়ে যাচ্ছে। আওয়ামী লীগ যে কোন মূল্যে তা প্রতিহত করে সুষ্ঠু নির্বাচনের মাধ্যমে ২০২৪ সালে আবার আওয়ামী লীগ সরকার গঠন করে দেশের মানুষের জন্য কাজ করে যাবে।

আলোচনা সভায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি মো. মোক্তার হোসেন, সাধারণ সম্পাদক সঞ্জিত কর্মকার, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি মো. আব্দুল হক, যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক শাহিনুর আলম লাবু, মর্জিনা খাতুন, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. মোজাম্মেল হক মাসুদ, মো. খলিলুর রহমান, উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. ফরহাদ আলী বিদ্যুৎ, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ইকবাল হোসেন রুবেল প্রমুখ।

আলোচনা শেষে শেখ হাসিনা দীর্ঘায়ু কামনা করে বিশেষ দোয়া করা হয় এবং জন্মদিনের কেক কাটা হয়। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মো. আব্দুল খালেক।

কেএমএল