Bangladesh
This article was added by the user . TheWorldNews is not responsible for the content of the platform.

সংস্কৃতি মানুষকে ভালোবাসতে শেখায়

সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি গোলাম কুদ্দুছ বলেছেন, সংস্কৃতি মানুষকে সত্য ও ন্যায়ের পথে চলতে উদ্বুদ্ধ করে ভালোবাসতে শেখায়। সংস্কৃতি মানুষের মধ্যে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক গড়ে তুলতে সহযোগিতা করে।

বুধবার (২৭ সেপ্টেম্বর) বিকালে রাজধানীর বেইলি রোডে বাংলাদেশ মহিলা সমিতির ড. নীলিমা ইব্রাহিম মিলনায়তনে জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে সুরতাল সংগীত একাডেমির আয়োজনে চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান হয়। এতে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

সুরতাল সংগীত একাডেমির সভাপতি মো. ফয়েজুল বারী ইমুর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন- বাংলাদেশ গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশনের সাবেক সেক্রেটারি জেনারেল আক্তারুজ্জামান, গণসংগীত সমন্বয় পরিষদের সভাপতি কাজী মিজানুর রহমান, গণসংগীত সমন্বয় পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মানজার চৌধুরী সুইট, বাংলাদেশ পথনাটক পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক মো. শাহ নেওয়াজ।

রোহানী তাজকীম ইতির সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন- সুরতাল সংগীত একাডেমির সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট তরুণ কুমার রায়।

এর আগে গত ২ ও ৬ সেপ্টেম্বর প্রতিষ্ঠানটির সিদ্বেশ্বরী কার্যালয়ে চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়।

অনুষ্ঠানের শুরুতে জাতীয় সংগীত, সুরতাল সংগীত ও বঙ্গবন্ধুর গান পরিবেশন করেন শিক্ষার্থীরা। প্রতিযোগিতায় চার বিভাগে মোট ৮৫ জন শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করেন।

সংস্কৃতি মানুষের মধ্যে বিভেদ তৈরি করে না জানিয়ে গোলাম কুদ্দুছ বলেন, সংস্কৃতি মানুষের মধ্যে মানবিকবোধ জাগ্রত করে মানুষের মধ্যে ঐক্য তৈরি করে। যার কারণে আমরা বলি সংস্কৃতি মানুষের মধ্যে দেশপ্রেম জাগ্রত করে।

তিনি বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এই দেশের মানুষের জন্য যৌবনের ১৩টি জেলে কাটিয়েছেন। তারপরও পাকিস্তানের সঙ্গে আপস করেননি।

তিনি পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী হতে পারতেন কিন্তু তিনি বলেছেন, আমি মানুষের অধিকার চাই, প্রধানমন্ত্রিত্ব চাই না। তিনি আরো বলেন, আজকের তরুণ প্রজন্মের শিক্ষার্থীরা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে দেখেনি। কিন্তু তার জন্য তারা গান গেয়েছে।

উল্লেখ্য, মুক্তিযুদ্ধের চেতনার আলোকে শুদ্ধ, সুস্থ ও নিজস্ব সংস্কৃতি চর্চার প্রসার এবং বিকাশে, ১৯৯৯ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়ে অদ্যাবধি ২৪ বছর ধরে এগিয়ে চলা দেশের ঐতিহ্যবাহী সাংস্কৃতিক সংগঠন ‘সুরতাল সংগীত একাডেমি’ গৌরবোজ্জ্বল সময় অতিক্রম করছে। ‘সুরতাল সংগীত একাডেমি’ সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট এবং বাংলাদেশ গণসংগীত সমন্বয় পরিষদের ডাকে বিভিন্ন আন্দোলন সংগ্রাম ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে নিয়মিত অংশগ্রহণ করে।

এআই