Bangladesh

উদ্যোক্তা-নির্ভর দেশ বিনির্মাণের পরিকল্পনা

হায়দার মোহাম্মদ জিতু হালের এই সময়ে যুক্তরাষ্ট্র থেকে প্রকাশিত ফোর্বস ম্যাগাজিন বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। যদিও এটি ব্যবসাভিত্তিক ম্যাগাজিন তবু ইদানীংকালে বিশ্বের অন্যান্য বিষয়াদির শ্রেষ্ঠত্ব নিয়েও নানা তালিকা প্রকাশ করে আসছে। সে হিসেবেই সাম্প্রতিককালে বিশ্বের সেরা উদ্যোক্তাদের তালিকা প্রকাশ করেছে। যেখানে আপন আপন কর্মগুণ এবং প্রজ্ঞায় বাংলাদেশের নয় জন তরুণ উদ্যোক্তার নাম উঠে এসেছে। যা দীর্ঘকালজুড়ে বন্ধ থাকা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর শিক্ষার্থীদের মাঝে পুনঃস্বপ্নের সঞ্চালন এবং আত্মবিশ্বাস জাগ্রত করতে পারে।

যদিও এটাও সত্য যে দৃশ্যমান বাস্তবতায় এই করোনা পরিস্থিতিতে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে নারী এবং শিশু শিক্ষার্থীরা। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর আবাসিক কাঠামোয় থাকাকালীন এক-দুটি টিউশনি বা ফ্রিল্যান্সিং করার কারণে এদের নিজেদের অর্থনৈতিক নিয়ন্ত্রণ নিজেদের হাতে ছিল। ফলে শিক্ষা জীবন এবং নিজ আকাশের স্বাধীনতায় অন্যদের হস্তক্ষেপ করার সুযোগ কম ছিল। কিন্তু দীর্ঘকাল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় এখন তথাকথিত সামাজিকতা এদের পেয়ে বসেছে। ঝরে যাচ্ছে মেধা। এই তো সেদিনও পার্বত্য অঞ্চলের সম্ভাবনাময় কয়েকজনের ভবিষ্যৎ নারী ফুটবলারের বিয়ে হয়ে গেছে।


কাজেই এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ‘চালু-সংকট’ মোকাবিলায় সার্বিক পরিকল্পনা জরুরি। কারণ সহসাই যে এই করোনাকে বাক্সবন্দি করা সম্ভব নয় সেটা এখন স্পষ্ট। কাজেই একে সঙ্গে করে যেমনটা মৃত্যুকে পাশে রেখে জীবন চলে সেভাবেই স্বাস্থ্যবিধি মেনে পন্থা গ্রহণ জরুরি। তাছাড়া শিক্ষার্থীদের মানসিক স্বাস্থ্য ঝুঁকিও মারাত্মকভাবে ঊর্ধ্বমুখী। কাজেই এসব বিবেচনায় বেঁচে থাকার এবং টিকে থাকার স্বপ্নগুলোকে সামনে আনা আবশ্যক।

আশা করা যায়, মাসখানেকের ভেতর তরুণ-তরুণীরা ঘর থেকে বেরোবে। বেরিয়েই অর্থনৈতিক এবং সামাজিক যুদ্ধে অবতীর্ণ হবে। এই সময়টা ঝুঁকিপূর্ণ। কারণ, দীর্ঘ সময় বন্দি থাকায় প্রায় প্রত্যেকেই বিক্ষিপ্ত। তবে এক্ষেত্রে গাঁয়ের ছেলেমেয়েরা কিছুটা এগিয়ে। কারণ, এরা খোলামেলা পরিবেশে খেতে খামারে সবুজ দেখেছে। কিন্তু শহুরে সংস্কৃতিতে ভিডিও গেমস, ইন্টারনেট, ভাঙা গড়ার কিছু সময় পার করা প্রেম ছাড়া আর কিছুই জোটেনি। তবে এ সময়টা এখানকার সাংস্কৃতিক অভাববোধের বিষয়টি আরও স্পষ্ট হয়ে উঠেছে।

অন্যদিকে এখানে জনসংখ্যার ঘনত্বের কারণে চাকরির বাজারে অসম প্রতিযোগিতা! কাজেই উদ্যোক্তা-নির্ভর সমাজ বিনির্মাণ করার পরিকল্পনা এবং ঝুঁকি গ্রহণ জরুরি। ঝুঁকির গ্রহণের ক্ষেত্রে দেশের মুক্তিযুদ্ধে থেকে অনুপ্রেরণা নেওয়া যায়। যেখানে পাকিস্তানিদের হাতের চাইনিজ, আমেরিকান অস্ত্রের বিরুদ্ধে বাঙালিরা থ্রি নট থ্রি দিয়ে রুখে দিয়েছিল। অর্থাৎ দুঃসাহসিক পথ পাড়ি দেওয়াই এখানকার সৌন্দর্য। কাজেই তরুণ-তরুণীদের ওপর আবারও এরকম আত্মবিশ্বাস স্থাপন করতে হবে।
এজন্যেই ক্ষুদ্র উদ্যোক্তাদের মাঝে সহজ শর্তে ঋণ প্রদান জরুরি। এক্ষেত্রে অনেক উদ্যোক্তা আছেন যাদের মস্তিষ্ক বিশ্বজয়ী উদ্ভাবন চিন্তাসম্পন্ন কিন্তু তাদের কাছে পুঁজি নেই। ব্যাংক গ্যারান্টি দেওয়ার মতো কিছু নেই। তাকেও ঋণ দিতে হবে। কারণ, ওই এক উদ্যোগেই হয়তো হাজার বা লাখের কর্মসংস্থান জুটাবে। দেশসহ বিশ্ব মানচিত্রের চিত্র বদলে দেবে। এজন্যেই তাঁদের ঋণ দেওয়া জরুরি। এক্ষেত্রে ব্যাংকের ‘কাগজ ফরমালিটি’ সম্পন্ন করতে প্রয়োজনে উদ্যোক্তার সার্টিফিকেট, এনআইডি, পাসপোর্টের গ্যারান্টি নিন।

কোনও কারণে কোনও উদ্যোক্তা খেলাপি হলে উদ্যোক্তার সার্টিফিকেট, এনআইডি, পাসপোর্টে একটা নেগেটিভ মার্ক দিয়ে আবার ঋণ দিন। কারণ, ১০-২০ লাখ ঋণ করা এসব উদ্যোক্তা অবুঝের মতো ঠকতে পারে কিন্তু এটা নিশ্চিত যে টাকা বিদেশে পাচার করবেন না। তাছাড়া যে বয়সে এদের ঋণের ব্যবস্থা করা হচ্ছে তাতে এদের গোটা যৌবনটাই পরে আছে পরিশ্রমের জন্যে, ঋণ পরিশোধের জন্য।

তবে এক্ষেত্রে ব্যাংকিং খাতের পেঁচানো টেবিল ঘোরাঘুরি, ২ টাকা ঋণ নিলে ২০/২৫ পয়সা কমিশন এসবও বন্ধ করতে হবে। আর যারা নিজের পায়ে দাঁড়াতে যাওয়া উদ্যোক্তাদের ঋণ প্রদান না করে ঘাড় ধাক্কা দিতে চায়, এদের সামাজিকভাবে চিহ্নিত করতে হবে এবং প্রয়োজনে মোড়ে মোড়ে এদের নামে ডাস্টবিন বানাতে হবে।

উন্নয়ন সম্পন্ন সময়ে প্রত্যেক পরিবার, সমাজ এবং রাষ্ট্রে এক ধরনের মৃদু ঝাঁকুনি আসে। শ্রেণির মাঝেও শ্রেণিদ্বন্দ্ব অনুভূত হয়। ভিন্নভাবে বললে, অধ্যায়ের ভেতর পরিচ্ছেদ তৈরির মতো। কাজেই এই ঝাঁকুনিকে সঠিকভাবে, সঠিক পথে চালিত করতে পারলেই সমৃদ্ধি, নইলে গোটা সময়ের পতন।

লেখক: প্রশিক্ষণ বিষয়ক সম্পাদক, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ, কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদ


[email protected]

Football news:

Malinovsky about 2:3 with the Netherlands: The match can not be called great, we played too low. Could be a draw
Clement Langle: Griezmann is not always treated fairly. He had a good season, but the bar is too high
Karasev has been appointed for the Italy-Switzerland match
St. Petersburg police asked a fan to remove the flag of Ukraine in the fan zone
Shevchenko played bravely, but paid for the failures in the center and on the flanks - the Netherlands could lead bigger
Zidane to the journalist: Will you ask the same stupid questions? Your job is a disgrace
Barcelona wants to get 5-10 million euros for Umtiti. He was bought for 25 million