logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo
star Bookmark: Tag Tag Tag Tag Tag
Bangladesh

নাক খুটলে যে বিপদে পড়বেন

নাক খোটানো দৃষ্টিকটু একটি অভ্যাস। উহু, ভুল হলো। অভ্যাস না বলে একে বদভ্যাস বলা ভালো। কিন্তু তারপরও কে কী মনে করল উপেক্ষা করে অনেকে মনের সুখে নাক খুটিয়ে থাকেন। তাদের জন্য সতর্কবার্তা হচ্ছে, এ অভ্যাসে স্বাস্থ্যের মারাত্মক ক্ষতি হতে পারে। কথাটি মনগড়া নয়, স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের পরিচালিত গবেষণা এ ধারণা দিচ্ছে। গবেষণাটি ইউরোপিয়ান রেসপিরেটরি জার্নালে প্রকাশিত হয়েছে। গবেষণায় পাওয়া গেছে, নাক খুটলে একটি বিপজ্জনক নিউমোনিয়া সৃষ্টিকারী ব্যাকটেরিয়া সহজেই ছড়াতে পারে।

লিভারপুল স্কুল অব ট্রপিক্যাল মেডিসিনের গবেষকরা মানুষের মধ্যে কীভাবে নিউমোনিয়া ছড়ায় জানতে চল্লিশ জন সুস্থ ভলান্টিয়ার নিয়ে পরীক্ষা করেন। তাদের চারটি গ্রুপে ভাগ করা হয় এবং ভিন্ন ভিন্ন হাত থেকে নাক পদ্ধতির মাধ্যমে ব্যাকটেরিয়ার সংস্পর্শে আনা হয়। দেখা যায়, আঙুল দিয়ে নাক যারা বেশি খুটেছে তারা নিউমোনিয়া সৃষ্টিকারী ব্যাকটেরিয়ায় আক্রান্ত হয়েছে।  

সায়েন্স ডেইলির প্রতিবেদন অনুসারে, এটা হচ্ছে প্রথম গবেষণা যেখানে  আবিষ্কৃত হয়েছে- নাক ও হাতের সংস্পর্শেও নিউমোনিয়া সৃষ্টিকারী ব্যাকটেরিয়া ছড়াতে পারে, কেবলমাত্র শ্বাসক্রিয়ার মাধ্যমে নয়। এছাড়া এ গবেষণায় আরো পাওয়া গেছে, আঙুল দিয়ে নাক খুটলে অথবা হাতের পিঠ দিয়ে নাক ঘষলে একই হারে ব্যাকটেরিয়া ছড়ায়।

গবেষণাটির অন্যতম প্রধান গবেষক ভিক্টোরিয়া কোনর বলেন, ‘বিশ্বজুড়ে মৃত্যুর একটি মুখ্য কারণ নিউমোকক্কাল ইনফেকশন। প্রতিবছর পাঁচ বছরের কম বয়সি প্রায় ১.৩ মিলিয়ন শিশু এই ইনফেকশনে মারা যায়।’ যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল ফাউন্ডেশন ফর ইনফেকশাস ডিজিজের মতে, নিউমোকক্কাল ইনফেকশন থেকে নিউমোনিয়া, সেপসিস বা রক্ত দূষণ ও মেনিনজাইটিস হতে পারে। চিকিৎসা না করলে মৃত্যু প্রায় নিশ্চিত।

ব্যাকটেরিয়াল প্যাথোজেন ও অন্যান্য অসুস্থতা এড়াতে এই গবেষণার ফলাফল হাতের স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার ওপর জোর দিচ্ছে, বলেন নিউ ইয়র্ক সিটির ফিজিশিয়ান ও হেলথ এক্সপার্ট নিসোচি। তিনি জানান, নাক খোটার সম্ভাব্য বিপদ হচ্ছে, নাক থেকে ঘনঘন রক্তক্ষরণ ও পুনরাবৃত্তিমূলক শ্বাসতন্ত্রের সংক্রমণ। কিছুক্ষেত্রে এ অভ্যাসে নাসাল সেপ্টাম পারফোরেশন বা নাকের ডান ক্যাভিটিকে বাম ক্যাভিটি থেকে পৃথককারী দেয়ালে ছিদ্র ও নাসাল ভেস্টিবুলাইটিস বা নাকের সম্মুখ অংশে ক্ষত হতে পারে।’

আপনার নাক খোটানোর প্রবণতা থাকলে সম্ভাব্য বিপদ থেকে রক্ষা পেতে আজই এ অভ্যাস বর্জনের শপথ নিন।

ঢাকা/ফিরোজ/তারা

Themes
ICO