logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo logo
star Bookmark: Tag Tag Tag Tag Tag
Bangladesh

রাস্তার পাশ থেকে উদ্ধার নবজাতক এখন রমেকে

রাস্তার পাশ থেকে উদ্ধার নবজাতক

রংপুর-দিনাজপুর মহাসড়কের পাশে ফেলে রেখে যাওয়া সদ্য ভূমিষ্ঠ নবজাতকে দেখার  দায়িত্ব আপাতত রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল কর্তৃক্ষকে দেওয়া হয়েছে। রবিবার  সন্ধ্যা এ আদেশ দেন রংপুরের জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট জাহাঙ্গীর আলম। সেই সঙ্গে নবজাতককে হাসপাতালের শিশু ওয়ার্ডে রেখে প্রয়োজনীয় চিকিৎসা দেওয়ার আদেশ দিয়েছেন আদালত। রংপুর মেট্রোপলিটান পুলিশের হাজিরহাট থানার ওসি মোস্তাফিজার রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

পুলিশ জানায়, রবিবার সকালে নগরীর হাজীরহাট থানা এলাকার হজ প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের সামনে রংপুর-দিনাজপুর মহাসড়কের পাশে কে বা কারা নবজাতককে রাস্তার পাশে ফেলে চলে যায়। ঘটনাটি জানাজানি হওয়ায় আশপার্শ্বের এলাকার শত শত মানুষ সেখানে ভিড় জমায়। খবর পেয়ে হাজিরহাট থানার ওসি মোস্তাফিজার রহমান পুলিশ ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে নবজাতককে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। কিন্তু কারা কেন নবজাতককে ফেলে রেখে গেছে কিংবা কে তাদের বাবা মা সে বিষয়টি অনুসন্ধানের চেষ্টা করছে পুলিশ। বিকেল পর্যন্ত নবজাতককে নিতে কেউ থানায় না আসায় ৫টার দিকে নবজাতককে রংপুর জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে পাঠানো হয়। সন্ধ্যায় আদালতের বিচারক জাহাঙ্গীর আলম নবজাতককে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের শিশু ওয়ার্ডে চিকিৎসার জন্য পাঠানোর আদেশ দেন।

এরইমধ্যে বেশ কয়েকজন নবজাতককে নেওয়ার জন্য পুলিশের কাছে আবেদন করেছে। পুলিশ তাদের আদালতে আবেদন করার পরামর্শ দেন। নবজাতকটিকে দত্তক নেওয়ার জন্য আদালতে আবেদন করেছেন তারাগঞ্জ মোটরশ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক ও কুর্শা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সদস্য মো. কামরুজ্জামান। এবিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য হাজির হাট থানার ওসি, জেলা শিশু কল্যাণ বোর্ডের সভাপতি ও সমাজ সেবা অধিদফতরকে নির্দেশ দিয়েছে আদালত। আবেদনের শুনানির জন্য পরবর্তী তারিখ আগামী ১০ ডিসেম্বর ধার্য করেছেন বিচারক।

কামরুজ্জামান বলেন, ‘আমার ১৭ বছরের বিবাহিত জীবন। আমার স্ত্রী মনোয়ারা বেগমের কোনও সন্তান নেই। বহু চিকিৎসা করিয়েছি। কিন্তু সন্তান হয়নি। ওই নবজাতককে দত্তক নেওয়ার জন্য আদালতে আবেদন করেছি। প্রয়োজনে আমি আমার স্থাবর-অস্থাবর সম্পত্তি লিখে দিতে রাজী আছি। আদালত আমার দায়িত্বে নবজাতককে দিলে আমি অন্য আর দশজন পিতার মত এই সন্তানকে মানুষ করবো।

এ ব্যাপারে হাজিরহাট থানার ওসি মোস্তাফিজার রহমান জানান, নবজাতকের বয়স আনুমানিক এক থেকে দুইদিন হবে। তাকে কেন রাস্তার পাশে এভাবে ফেলে রাখা হলো, পুলিশ গুরুত্ব সহকারে বিষয়টি তদন্ত করে দেখছে। এ বিষয়ে পুলিশ একটি জিডি করেছে।

Themes
ICO